Wednesday, January 23, 2019

গর্ভাবস্থায় কোমর ব্যথার কারণ ও প্রতিকার

গর্ভাবস্থায় কোমর ব্যথার কারণ ও প্রতিকারঃ

গর্ভাবস্থায় কোমর ব্যথার কারণ ও প্রতিকার

 কোন নারীর প্রেগন্যান্ট অবস্থায়,বিশেষ করে বাচ্চা হবার অন্তিম মুহূর্তে কোমর ব্যথা হওয়া প্রতিটি নারীদের জন্য একটা কষ্টের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।এই কোমর ব্যথার কারণে চলতে ফিরতে কষ্ট হয়,রাতে ঘুম আসে না,অনেকের সারা রাত মাজায় ও পিঠে মালিশ করতে হয়।এটা আসলে গর্ভবতী মায়ের জন্য বিরাট কষ্টকর ও বিরক্তির ব্যাপার।

কোমর ব্যথা হওয়ার কারণঃ

১।জরায়ু বড় হওয়ার কারণে মায়ের দেহের ভরকেন্দ্র পরিবর্তন হয়,যার ফলে পিঠের উপর অতিরিক্ত চাপ বাড়ে। এটার কারণে কোমর ব্যথা হতে পারে।
২।প্রেগন্যান্ট অবস্থায় ওজন বাড়ে,দেহ আগের তুলনায় অনেক ভারী হয়। তাই পেশি ও গ্রন্থির উপর চাপ পড়ে।
৩। প্রসবের কিছুদিন আগে থেকে স্বাভাবিক প্রসবের প্রস্ততিসরুপ রিলাক্সিন হরমোনের প্রভাবে কোমরের জয়েন্টের লিগামেন্টগুলো শিথিল হয়ে যায় যার ফলে কোমরে ব্যথা বাড়ে।
৪।গর্ভাবস্থায় শারীরিক ও মানসিক চাপ বাড়ার কারণে কোমরে ব্যথা হতে পারে।

প্রতিকারের উপায়ঃ

১। ব্যায়াম ও মেডিটেশন ব্যথা কমাতে সাহায্য করে।পিঠে ও কোমরে হালকা উষ্ণ সরিষার তেল দিয়ে মালিশ করা যেতে পারে।
২। নিচু হয়ে ঝুঁকে মোটেই কোন কাজ করা যাবে না, সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে বা বসে কাজ করতে হবে,ভারী কিছু বহন করা বা উঠানো যাবে না।
৩।পানি উষ্ণ গরম করে পরিষ্কার কাপড় দিয়ে সেক দিতে পারেন তাহলে অনেকটা আরাম লাগবে।
৪।চিত হয়ে কখনই শুবেন না সবসময় কাত হয়ে শুতে চেষ্টা করবেন।দুই পায়ের মাঝখানে এবং পিঠের নিচে বালিশ দিয়ে ঘুমালে মেরুদন্ডের চাপ অনেকটা কমে যাবে।
৫।উঁচু জুতা একেবারেই পরা যাবে না সবসময় সমান জুতা পরতে হবে, তাছাড়াও হালকা উঁচু নরম সেলের জুতা পরতে হবে।
৬।গর্ভাবস্থায় মোটেই শুয়ে বসে থাকবেন না বাড়ির খুটিনাটি কাজ করুন আর হাঁটাহাঁটি করা সবচেয়ে বেশি উত্তম। 

Rea es:
শেয়ার করুন

Author:

আমি একজন অতি সামান্য মানুষ। পেশায় একজন লেখক,ব্লগার এবং ইউটিউবার। লেখালেখি করতে খুব ভালো লাগে। আমার এই সামান্য প্রয়াসের মাধ্যমে মানুষের কিছু শেখাতে পারা ও বিনোদন দেওয়ার মাধ্যমে আনন্দ খুঁজে পায়।

0 coment rios: