রবিবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০১৯

কম্পিউটার ও মুঠোফোনের গুরুত্বপূর্ণ কিছু সেটিং ও ব্যবহার।

কম্পিউটার ও মুঠোফোনের গুরুত্বপূর্ণ কিছু সেটিং ও ব্যবহার।  

কম্পিউটার ও মুঠোফোনের গুরুত্বপূর্ণ কিছু সেটিং ও ব্যবহার।

বর্তমানে এখন কমবেশি সবাই ল্যাপটপ,কম্পিউটার,ট্যাব,মুঠোফোন ব্যবহার করে থাকি।কিন্তু আমরা এসকল জিনিসের সঠিক ব্যবহার জানি না। যার ফলে আমাদের শখের জিনিসগুলো অল্প সময়ের মধ্যে নষ্ট হয়ে যায়। এছাড়াও এসকল নিয়ম গুলো জানা থাকলে খুব সহজেই এগুলো চালানো যায়। আসুন আজকে আমরা জানবো কম্পিউটার ও মুঠোফোন ব্যবহারের কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস। খুব মনোযোগ সহকারে টিপসগুলো পড়বেন।

১।সাইবার ক্যাফে বা অন্য কারও কম্পিউটার বা ল্যাপটপ  ব্যবহারের সময় ওয়েবসাইট ব্রাউজ করতে চাইলে সবসময় ব্রাউজারের গোপন উইন্ডো ব্যবহার করবেন। ব্রাউজার ভেদে আলাদা আলাদা নাম হয় কোন কোন ব্রাউজারের নাম থাকে প্রাইভেট মোড আবার কোনটাই ইনকগনিতো মোড নামে পরিচিত।এই গোপন উইন্ডো ব্যবহার করেই ক্লোজ করে দিলে আর জানতে পারবেনা। আপনার পাসওয়ার্ড বা ব্রাউজ হিস্ট্রি কিছুই কম্পিউটারের মধ্যে থাকবে না।

২।ব্রাউজারের হোমপেজ হিসেবে উইকপিডিয়ার র‍্যান্ডম আর্টিকেল ঠিক করে দিন। প্রতিবার ব্রাউজার খুললেই নতুন নতুন আপডেট তথ্য জানতে পারবে।

৩। যেকোন ফাইলের নাম পরিবর্তন করতে চাইলে সে ফাইল নির্বাচন করে কিবোর্ড থেকে  f2 চাপুন।

৪। কম্পিউটার থেকে ইউটিউবে ভিডিও দেখার সময় কিবোর্ডের অ্যারো বোতামের সাহায্যে একবারে ১০ সেকেন্ড পর্যন্ত সামনে বা পেছনে নেওয়া যায়। তবে আপনি চাইলে ১ সেকেন্ডের ১০ ভাগের একভাগ করেও সামনে বা পেছনে নিতে পারবেন। সেই জন্য ইউটিউবের ভিডিও অফ করে "<"এবং">"বোতাম চেপে সামনে পেছনে নিতে হবে।

৫। ভুলবশত বা যান্ত্রিক গোলযোগের কারণে যদি ব্রাউজার বন্ধ হয়ে যায়,তবে আবার তা চালু করলে আগের কোন ট্যাব আর থাকে না। সে ক্ষেত্রে ব্রাউজারে প্রবেশ করে (ctrl+shift+T) বোতাম তিনটি একসাথে চাপলে  বন্ধ হয়ে যাওয়া ট্যাব গুলো পুনরায় ফিরে পাবেন।

৬। মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের অটোসেভ ফোল্ডার হিসেবে ড্রপবক্সের কোন ফোল্ডার নির্বাচন করে দিন। এতে সেভ করতে ভুলে গেলেও অটোমেটিক ফাইলগুলো ক্লাউড ড্রাইভে সংরক্ষণ হয়ে যাবে।

৭। ই-মেইল লেখার সময় বা কারও কাছে পাঠানোর সময় লেখা শেষ হওয়ার আগেই প্রাপকের ঠিকানা যোগ করবেন না।তাহলে ভুল করে অন্য জায়গায় পাঠানোর সম্ভাবনা থাকবে না।

৮। ব্রাউজারে কোন লিঙ্ক নতুন ট্যাবে খুলতে চাইলে শিফট বোতাম চেপে লিঙ্কে ক্লিক করুন।

৯। উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে "size:gigantic"লিখে খুঁজলে ১২৮মেগাবাইটের বড় ফাইলগুলো সার্চ রেজাল্টে পাবে। জায়গা কমে গেলে এবার মুছতে সুবিধা হবে।

১০। কম্পিউটারের কাজ করার সময় ২০ মিনিট পরপর ২০ সেকেন্ড ২০ ফুট দূরে গিয়ে অন্য দিকে তাকিয়ে থাকবেন। তাতে করে আপনার চোখের কোনরকম সমস্যা হবে না। এতে চোখ খানিকটা আরাম পাবে এবং চোখের দৃষ্টি শক্তি ঠিক থাকবে। 

১১। কম্পিউটারে ইউটিউবের ভিডিও  ডাউনলোড করতে হলে  সেই ভিডিও এর উপরের লিঙ্কে https://www.এর পরে দুইটা ss দিয়ে ইন্টার চাপুন তাহলে ডাউনলোড লিঙ্ক পেয়ে যাবেন।   

শেয়ার করুন

Author:

আমি একজন অতি সামান্য মানুষ। পেশায় একজন লেখক,ব্লগার এবং ইউটিউবার। লেখালেখি করতে খুব ভালো লাগে। আমার এই সামান্য প্রয়াসের মাধ্যমে মানুষের কিছু শেখাতে পারা ও বিনোদন দেওয়ার মাধ্যমে আনন্দ খুঁজে পায়।

0 coment rios: