সোমবার, ৬ আগস্ট, ২০১৮

ঘৃণিত নারী প্রতি রাতে একটা করে স্বামী গ্রহন করতেন।

ইতিহাসের সবচেয়ে ঘৃণিত নারী যিনি প্রতি রাতে একটা করে স্বামী গ্রহণ করতেন এবং তাদেরকে মেরে ফেলতেন আসুন আমরা বিস্তারিত নিচে পড়িঃ
ঘৃণিত নারী প্রতি রাতে একটা করে স্বামী গ্রহন করতেন
queen cleopatra-http://www.topbanglapages.com/
ফারাও রাজবংশের সর্বশেণ রাণী ক্লিওপেট্রা।তাকে ঘিরে ইতিহাসে বিতর্ক আর রহস্যের কোনো শেষ নেই। যেমন রহস্যময তার জীবন ও রাজ্য শাসন তেমনি রহস্যময় তার প্রেম। ক্লিওপেট্রার প্রেম নিয়ে পৃথিবীর ইতিহাসে অনেক গল্প-অনেক কাহিনীর অবতারণা হয়েছে। এমনকি মহান সাহিত্যিক শেকসপিয়র পর্যন্ত তার নাটকে অমর করে রেখেছেন রানী ক্লিওপেট্রার প্রেমকাহিনীকে। তিনি লিখেছেন অ্যান্টনি-ক্লিওপেট্রা। অন্যদিকে জর্জ বানার্ড শ লিখেছেন সিজার-ক্লিওপেট্রা। এ ছাড়াও ক্লিওপেট্রার চরিত্র নিয়ে লিখেছিলেন বিখ্যাত সাহিত্যিক ড্রাইডেন প্লুটার্ক, ড্যানিয়েল প্রমুখ। ফলে হাজার হাজার বছর পরও ক্লিওপেট্রার প্রেম নিয়ে আলোচনা চলছে আজও। লেখালেখিও থেমে নেই। তবে তার এই প্রেম কাহিনীর মধ্যে ছিল নৃশংসতা ও বর্বরতা। নিচে সেই সম্পর্কে আলোচনা করা হবে।
 ক্লিওপেট্রার জন্ম খ্রিস্টপূর্ব ৬৯ সালে প্রাচীন মিশরের আলেকজান্দ্রিয়ায়। অধিকাংশ ইতিহাসবিদের মতে খ্রিস্টপূর্ব ৫১ অব্দে রোম সম্রাট টলেমি অলেতিস মারা গেলেন। মারা যাওয়ার আগে তার বিশাল সাম্রাজ্য ১৮ বছর বয়সী কন্যা ক্লিওপেট্রা  পুত্র টলেমি-১৩-কে উইল করে দিয়ে যান। তখনকার মিসরীয় আইন অনুসারে দ্বৈত শাসনের নিয়মে রানী ক্লিওপেট্রার একজন নিজস্ব সঙ্গী থাকা বাধ্যতামূলক ছিল। কাজেই ক্লিওপেট্রাকে বিয়ে করতে হয় তারই ছোটভাই টলেমি-কে, যখন টলেমির বয়স ছিল মাত্র ১২ বছর। ফলে আইনগতভাবে রাজ্য পরিচালনার দায়িত্বভার অর্পিত হলো ক্লিওপেট্রা এবং তার স্বামী ১২ বছর বয়সী ছোট ভাই ত্রয়োদশ টলেমি এর উপর। ক্ষমতায় আরোহণের পর নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়েও ক্লিওপেট্রা তার শাসন চালিয়ে গেলেন। এরই মধ্যে ৪৮ খ্রিস্টপূর্বাব্দের দিকে ফারসালুসের যুদ্ধে দায়িত্বপ্রাপ্ত সেনাপতি পম্পে পরাজিত হলেন। সে বছরই আলেকজান্দ্রিয়ায় ফেরার পথে ফারসালুসের হাতে নিহত হন। যুদ্ধ থেকে পালাতে গিয়ে ক্লিওপেট্রার স্বামী ও ভাই টলেমি-১৩ মৃত্যুবরণ করেন। তার মৃত্যুর পর ক্লিওপেট্রা হয়ে ওঠেন মিসরের একচ্ছত্র রানী।

তিনি যখন একচ্ছত্র রানীর অধিকারিণী হন তখনই তিনি প্রতি রাতে একটা করে স্বামী গ্রহন করতে শুরু করে। এখন আপনার মনে একটা প্রশ্ন আসছে এটি আবার কিভাবে সম্ভব তাই তো? হ্যাঁ সত্যিই তাই কেননা সে অতি সুন্দরী নারী ছিলেন তাই যে কাউকে প্রস্তাব দিলে সাথে সাথে রাজি হয়ে যেতেন। কিন্তু আপনার মনে আরেকটি প্রশ্ন আসছে তাহলে তিনি তাদেরকে কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করতেন। তিনি প্রতি রাতে একজন করে সুন্দর পুরুষ রাজ প্রাসাদে নিয়ে আসতেন এবং সারা রাত ঐ পুরুষের সাথে ফুর্তি করতেন। যখন ঐ পুরুষ ঘুমিয়ে পড়ত তখন ছুরি দিয়ে তার বুকটা ঝাঁজরা করে দিতেন এবং সেই রক্ত দিয়ে গোসল করতেন।


শেয়ার করুন

Author:

আমি একজন অতি সামান্য মানুষ। পেশায় একজন লেখক,ব্লগার এবং ইউটিউবার। লেখালেখি করতে খুব ভালো লাগে। আমার এই সামান্য প্রয়াসের মাধ্যমে মানুষের কিছু শেখাতে পারা ও বিনোদন দেওয়ার মাধ্যমে আনন্দ খুঁজে পায়।

0 coment rios: