বুধবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০১৯

প্রযুক্তির উন্নয়নে বেকারত্ব বাড়ছে।

প্রযুক্তির উন্নয়নে বেকারত্ব বাড়ছেঃ

প্রযুক্তির উন্নয়নে বেকারত্ব বাড়ছে।

সম্প্রতি একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, প্রযুক্তির উন্নয়নের জন্য যুক্তরাজ্যে ৬৫ লাখের বেশি কর্মী দুশ্চিন্তায় আছেন। কারণ প্রযুক্তি বা যন্ত্রের ব্যবহার এত পরিমাণ বাড়ছে যার ফলে কর্মীদের আর প্রয়োজন হচ্ছে না। যন্ত্র দ্বারায় সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান সাম্প্রতিক একটি প্রতিবেদনে এ ধরনের আশঙ্কাজনক কথা প্রকাশ করেছেন। বিশ্বের সকল প্রযুক্তিভিত্তিক দেশসমূহে এমন আশঙ্কা রয়েছে যার ফলে সাধারণ কর্মীদের জন্য এটি একটি মারাত্মক ভয়ের কারণ।

ব্রিটিশ সরকারের সঙ্গে এক বিতর্কমূলক অনুষ্ঠানে প্রযুক্তির উন্নয়নের ফলে দেশটিতে বেকারত্বের হার বাড়ছে বলে জানান ওই দেশের প্রধান বিরোধী দলের নেত্রী ইভেট কুপার। তিনি আরও বলেন অর্থনীতির চালিকা শক্তি যদি যন্ত্র হয়  তাহলে যুক্তরাজ্যে ব্যাপক বৈষম্য দেখা দিতে পারে। সেখানে আরও উল্লেখ করা হয়, বিশেষত উৎপাদন শিল্প কলকারখানায় স্বয়ংক্রিয় যন্ত্র মানুষের কাজ গুলোকে দখল করে ফেলছে। যুক্তরাজ্য জুড়ে প্রায় ২ কোটি কর্মীর চাকরি হারাবে বলে আগাম সতর্কবার্তা দিয়েছেন ঐ দেশের বৃহত্তম ব্যাংক অফ ইংল্যান্ড। এছাড়াও ইংল্যান্ডের নগরনীতি গবেষণা ইউনিট সেন্টার ফর সিটিস মনে করেন, যুক্তরাজ্যের ৪৫ শতাংশ চাকরি যন্ত্রের সঙ্গে বদল হবে।


তবে এসকল বিষয়ে মানুষের তেমন কোন মাথা ব্যথা নেই। প্রযুক্তি উন্নয়নে মানুষের বেকারত্ব বাড়বে বলে কেউই তা বাঁধা দেওয়ার মত প্রকাশ করে না। এক গবেষণা করে দেখা গেছে যে, যুক্তরাজ্যের প্রতি ১০ জনের একজন ভাবছেন,সরকার তাদের জন্য যথেষ্ট সুযোগ সুবিধা দিচ্ছেন।অন্যদিকে দেশটির ১৬ শতাংশ কর্মী বলছেন,ট্রেড ইউনিয়ন প্রযুক্তির মাধ্যমে তাঁদের কর্মসংস্থান আরও উন্নত করতে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। বিরোধী দলের নেত্রী ইভেট কুপার দাবি জানান বেকারত্ব ঠেকাতে সরকারকে পূর্বপরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে। তিনি আরও বলেন আসন্ন সংকট এড়াতে হলে আগে থেকেই কর্মীদের  নিয়ে ভাবতে হবে। কারণ প্রযুক্তির উন্নয়নে যদি বেকারত্ব বাড়ে তাহলে অবশ্যই বিকল্প চিন্তাধারার উপায় বের করতে হবে।

প্রযুক্তির উন্নয়নে বেকারত্ব বাড়ছে।




শেয়ার করুন

Author:

আমি একজন অতি সামান্য মানুষ। পেশায় একজন লেখক,ব্লগার এবং ইউটিউবার। লেখালেখি করতে খুব ভালো লাগে। আমার এই সামান্য প্রয়াসের মাধ্যমে মানুষের কিছু শেখাতে পারা ও বিনোদন দেওয়ার মাধ্যমে আনন্দ খুঁজে পায়।

0 coment rios: